স্কুলশিক্ষার ক্ষেত্রে বেসরকারিকরণের হাতছানি; পিপিপি মডেলে চলবে স্কুল

Durgapur News Paschim Bardhaman Political West Bengal

নিউজ ফ্রন্টলাইনার ওয়েবডেস্ক, ১৭ই ফেব্রুয়ারিঃ
রাজ‍্যের তৃণমূল সরকার যে স্কুলশিক্ষাকে বেসরকারি হাতে তুলে দিতে চায়; তার ইঙ্গিত ছিল বেশ কিছুদিন ধরেই। হালফিলে প্রকাশিত খসড়া নীতিতে সেকথাই প্রমাণিত হল।যা এখনো অবধি জানা গেছে রাজ‍্যে পড়ে থাকা বেশকিছু সরকারি বিদ‍্যালয়ের জমি, বাড়ি ও অন‍্যান‍্য অব‍্যবহৃত পরিকাঠামো তুলে দেওয়া হবে বেসরকারি সংস্থাকে। পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ মডেলে নতুন করে এই বিদ‍্যালয়গুলির সংস্থাপন তৈরি হবে। রাজ‍্যে দীর্ঘদিন ধরে চলা অবৈতনিক শিক্ষাব‍্যবস্থা, যাতে দরিদ্র, নিম্নবিত্ত তথা প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভুক্ত মানুষের ছেলেমেয়েরা শিক্ষালাভ করার সুযোগ পায়, তার মূলে কুঠারাঘাত করা হচ্ছে রাজ‍্য সরকারের এই নীতির মাধ‍্যমে, তাতে বিন্দুমাত্র সংশয় নেই কারোরই।

কর্পোরেট গোষ্ঠীর হাতে শিক্ষার ভার চলে গেলে তারা এই ক্ষেত্র থেকে মুনাফা লোটারই চেষ্টা করবে। সেক্ষেত্রে গ্রাম ও শহরের অসংখ‍্য মানুষের সন্তানদের ভবিষ্যৎ যে কোন অন্ধকারে তলিয়ে যাবে সেই আশঙ্কা ইতিমধ‍্যেই বড়ো হয়ে উঠেছে।
গত কয়েকবছরে স্কুলে স্কুলে ছাত্রসংখ‍্যা উল্লেখযোগ‍্য ভাবে কমতে শুরু করেছে। এর পেছনে একটা বড়ো কারণ শিক্ষকদের অপ্রতুলতা। বহু স্কুলে অসংখ‍্য শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী পদ ফাঁকা বছরের পর বছর ধরে।

হালফিলে ৭৯টি জুনিয়র ও হাইস্কুলের দরজায় সরকার তালা মেরে দিয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে সরকার তার খসড়া নীতিতে পিপিপি মডেলে এইধরণের স্কুলগুলিকে প্রাইভেট সংস্থার হাতে তুলে দেওয়ার সংকল্প নিয়েছে। অর্থাৎ সরকারি ব‍্যবস্থাপনায় বেসরকারি সংস্থা একদিকে যেমন পরিকাঠামো তৈরি করবে, অন‍্যদিকে ছাত্রভর্তি থেকে শিক্ষক শিক্ষাকর্মীনিয়োগ সবটাই যাবে তাদের হাতে। গত ২রা ডিসেম্বর আদানি গোষ্ঠীর কর্ণধার গৌতম আদানি নবান্নে এসে মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায় ও মুখ‍্যসচিবের সঙ্গে এক গোপন বৈঠক করেন। সূত্রমারফৎ জানা গেছে সেই বৈঠকেই এই অশুভ উদ‍্যোগের চূড়ান্ত রূপ ঠিক হয়।

রাজ‍্যের শিক্ষামহলের এক বড়ো অংশ ইতিমধ‍্যেই এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন। তাঁদের সঙ্গত আশঙ্কা এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে একদিকে যেমন লক্ষ লক্ষ শিশুর শিক্ষার অধিকার বিঘ্নিত হবে, অন‍্যদিকে তেমনি শিক্ষাপরিচালনার ভার বেসরকারি হাতে চলে গেলে শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের সুষ্ঠু নিয়োগব‍্যবস্থা বিপর্যস্ত হয়ে পড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *